বসন্ত এসে গেছে

ইসরাত জাহান

চারিদিকে মুখরিত ধ্বনি শুনছি “বসন্ত এসে গেছে” কিন্তু কোথায় এসেছে বসন্ত?
কার বাড়ি? কোন ট্রেনেই বা এল ?
আমি না ঠিকঠাক বুঝে উঠতে পারছিনা!

এমন হাজারো প্রশ্নে আমি দিশেহারা!
আমি ছুটে গেলাম আমার গাঁয়ের মাঠে, মাঠকে গিয়ে বললাম তুমি কি জানো? বসন্ত এসে গেছে।
একরাশ দীর্ঘশ্বাস ছেড়ে মাঠ আমাকে বললো কচি কচি পা গুলো আর এদিকে আসে না। আমার চারপাশের আইলে যে ফুল ফুটে আছে তাদেরকে আর কেউ দেখে না।
তাই আমি বুঝতে পারি না বসন্ত এসে গেছে।

আমি চলে গেলাম পাখিদের কাছে জিজ্ঞেস করলাম পাখিকে,পাখিরা তো হতবাক! চারিদিকে এতো মস্ত মস্ত টাওয়ার তোমরা কি আমাদের কে দ্যাখো? কোকিল এসে আমায় বললো তোমরা তো বসন্ত উৎসব আর বসন্তের গান নিয়েই ব্যস্ত
আমার গান কি তোমরা শোন?

আমি চলে গেলাম ফুল প্রজাপতির কাছে, তোমরা কি জানো? বসন্ত এসে গেছে। প্রজাপতি মন খারাপ করে বললো তুমি যাও না ফুলের কাছে ফুল ভালো বলতে পারবে। বসন্ত তো ফুলের কাছেই আসে।
ফুলেরা বলে আমরা তো থাকি সারাদিন ধুলো মাখামাখি করে ভ্রমর কি কখনও এসে বসে?
তোমরা তো ফুল নিয়ে নিজেকে সাজাও
কখনও কি ফুলের গন্ধ মেখে নাও?
এখন আমরা বসন্ত দেখি না আমাদের বুকে ভ্রমর খেলা করে না।

সন্ধ্যা নামার আগেই আমি চলে যাই আমার চন্দনা নদীর ধারে আমি নির্জনে গিয়ে বসি। নদীকে জিজ্ঞেস করি দেখেছো বসন্তরে? আমার চন্দনা নদী হাসি দিয়ে আমায় বললো, আমি হলো স্রোতহীন নদী
সারাদিন জঞ্জাল বয়ে বেড়াই তুমি বসন্ত খোঁজ আমার শরীরে?

আমি ঝিরিঝিরি বয়ে যাওয়া বাতাস কে বললাম, তুমি কি বসন্ত বাতাস বইছো? বাতাস আমার কানে কানে বলে গেল, তুমি বসন্ত খোঁজ পথে, ঘাটে, মাঠে , নদীতে কোথাও কি পাবে বসন্ত?

তুমি যদি সত্যিই বসন্ত পেতে চাও
তাহলে তুমি ফেসবুকে চলে যাও

 

Next Barisal banner ads

Leave a Reply

Your email address will not be published.