হিলালী

মোহাম্মদ নূরুল্লাহ ।।

নীলাম্বরের ঐ নীলিমার মাঝে,
চির কাঙ্ক্ষিত হয়ে এলে ভুবনের মাঝে।
তোমার দীপ্তি আর স্নিগ্ধতায়
ইন্দ্রিয় জাগ্রত হয় পুলকে পুলকে …
আদি লগ্নে তোমায় দেখেছিলাম কৃষকের হাতে
যে কাস্তে দিয়ে কৃষক সদা শস্য কাটে।

দিন যায়, ক্ষণ যায়, তোমার পরিধি বাড়ে
দিনমজুর ক্ষুধার্তের চিরকাঙ্ক্ষিত রুটির মতো।
তোমার পূর্ণ শরীর দেখে—
জয়গুণের কথা বেশ মনে পড়ে,
গদুপ্রধানের অত্যাচারের কথা তোমায় দেখে
স্মৃতিতে ভেসে ওঠে।

তুমি আনন্দের জোয়ারে ভাসিয়ে
প্রেমিক-প্রেমিকার হৃদয় ছুঁইয়ে যাওয়া
এক অবিনাশী চিত্রপট এঁকে যাও।

সাগরের ঊর্মিমালা আপন যৌবন ফিরে পায়
তোমার রূপে মুগ্ধ হয়ে;
হিলালী ! ও আমার হিলালী !
নাম শুনেই হৃদয় মাঝে কেমন যেন নাড়া দেয়।

কবির তুলিতে তার ব্যাখ্যা করা শোভা পায় ?
জানিনা কোথায় আছো ?
কেমন আছো ?
আজও জানতে ইচ্ছে করে
তোমায় … … …।

Next Barisal banner ads

Leave a Reply

Your email address will not be published.